বিশ্বের শ্রেষ্ঠ শিক্ষক পিটার তাবিচি

16
পুরস্কার গ্রহণ করেছেন পিটার তাবিচি

জকিগঞ্জ ভিউ:: ২০১৮ সালের জন্য বিশ্বের শ্রেষ্ঠ শিক্ষক হিসেবে পুরস্কার পেয়েছেন কেনিয়ার পিটার তাবিচি। তিনি তার আয়ের ৮০ শতাংশ তার শিক্ষার্থীদের পড়ালেখার পেছনে ব্যয় করেন।

বক্তব্যরত

দুবাইয়ে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে পিটার তাবিচির হাতে পুরস্কারটি তুলে দেন হলিউড অভিনেতা হিউ জ্যাকম্যান। খবর খালিজ টাইমসের।

এ পুরস্কারের সঙ্গে ১০ লাখ মার্কিন ডলার অর্থও পেয়েছেন তাবিচি।

রাষ্ট্রপতির সাথে প্রার্থনারত

শিক্ষকতা পেশার মর্যাদা উন্নীত করা ও শিক্ষকতা পেশাকে আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃতি প্রদানের উদ্দেশ্যে প্রতিবছর এ পুরস্কার দেয় দাতব্য সংস্থা ভার্কে ফাউন্ডেশন।

বিশ্বের ১৭৯ দেশের ১০ হাজারের বেশি প্রার্থীর মধ্যে থেকে তাবিচিকে এ পুরস্কারের চূড়ান্তভাবে মনোনীত করা হয়।

পিটার তাবিচি কেনিয়ার একটি গ্রামের মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের গণিত ও পদার্থবিদ্যার একজন শিক্ষক।

তিনি তার আয়ের ৮০ শতাংশ শিক্ষার্থীদের স্কুলের পোশাক বা বইকেনার পেছনে ব্যয় করেন।

তাবিচি পয়ানি গ্রামের ‘কেরিকো মিক্সড ডে সেকেন্ডারি স্কুল’-এ শিক্ষকতা করেন। এটি এমন একটি অঞ্চল যেখানে সবসময়ই খরা ও দুর্ভিক্ষ লেগে থাকে।

পুরস্কার পেয়ে দেশে ফেরার পর মাতৃভূমি তে চুম্বনরত

পুরস্কার বিতরণ করা সংস্থার কর্তৃপক্ষ জানায়, স্কুলটির ৯৫ শতাংশ শিক্ষার্থীই দরিদ্র পরিবার থেকে এসেছে। অন্তত এক-তৃতীয়াংশ শিক্ষার্থী অনাথ এবং অনেকেই অভুক্ত অবস্থায় দিনযাপন করে’।

তাবিচি গত ১২ বছর ধরে শিক্ষকতা পেশায় নিযুক্ত আছেন।

শিক্ষকতার পাশাপাশি তিনি মেয়েদের পড়াশোনা নিশ্চিতের জন্য তাদের অভিভাবকদের পরামর্শ দেন।

তিনি স্কুলের সায়েন্স ক্লাবের কার্যপরিধি এমনভাবে বাড়িয়েছেন, যার ধারাবাহিকতায় স্কুলের শিক্ষার্থীরা উন্নতমানের গবেষণাধর্মী প্রকল্প তৈরি করতে শিখেছে।

বর্তমানে তাদের অধিকাংশ প্রকল্পের পরিকল্পনাই জাতীয় পর্যায়ের প্রতিযোগিতার জন্য মনোনীত হয়।

সম্প্রতি আন্তর্জাতিক পর্যায়ের বিজ্ঞান প্রতিযোগিতাতেও তার এক ছাত্রের প্রকল্প পুরস্কৃত হয়েছে।

৩৬ বছর বয়সী এ শিক্ষক শুধু কেনিয়াতেই নয়, পুরো আফ্রিকার শিক্ষার্থীদের কাছেই বিজ্ঞান শেখার গুরুত্ব সম্পর্কে তাদের সচেতনতা বাড়াতে চান।

তিনি বলেন, শিক্ষক হিসেবে আমি দেখেছি- এখানকার তরুণদের সম্ভাবনা কতটুকু- তারা উৎসুক, প্রতিভাবান, বুদ্ধিমান ও আত্মবিশ্বাসী।