হাজীগঞ্জে নদীভাঙ্গন প্রতিরোধে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত

26

জকিগঞ্জ ভিউঃ জকিগঞ্জের ০৮নং কসকনকপুর ইউনিয়নাধীন হাজীগঞ্জ মৌলভীচক এর সুরমানদী ভাঙ্গন প্রতিরোধে হাজীগঞ্জ উন্নয়ন পরিষদের উদ্যোগে বিশাল মানববন্ধন ১৮ই ডিসেম্বর শুক্রবার সকাল ১০ঘটিকায় মৌলভীচক নদীভাঙ্গন প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত হয়।

হাজীগঞ্জ উন্নয়ন পরিষদের উপদেষ্ঠা পরিষদের সদস্য আলহাজ্ব আব্দুল লতিফ এর সভাপতিত্বে, সাধারণ সম্পাদক হাফিজ জুবায়ের আহমদ ও যুগ্ম সম্পাদক ইমাদ উদ্দীনের যৌথ পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন মাস্টার জামাল উদ্দিন লস্কর, আব্দুল মালিক মিরাসী, জালাল উদ্দীন, সোলেমান আহমদ লস্কর, মাস্টার আবুল কালাম, রেজাউল হক রাজু, আব্দুল বাসিত মিরাসী, কামরুল ইসলাম, মাওলানা জুবায়ের আহমদ প্রমূখ।

জানা যায়, দীর্ঘদিন থেকে মৌলভীচক সুরমানদীর তীরবর্তী বাড়িগুলো নদীগর্ভে বিলিন হতে শুরু করে। এপর্যন্ত প্রায় ২০০টি পরিবার ভিটেমাটি ছেড়ে অন্যত্র চলে গেছেন। সম্প্রতি সময়ে মামুন আহমদ নামক দিনমজুর লোকটির ভিটা সহ প্রায় ২বিঘা জমি নদীগর্ভে চলেগেছে। দুইটি মসজিদ ও ৩৬০আউলিয়ার একজন সাথী (হযরত আব্দুল মালিক রহ.) এর মাজার ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় আছে। এলাকার ত্রিশ হাজার লোকের একমাত্র যাতায়াতের রাস্থাটিও নদীগর্ভে চলে যাওয়ায় এলাকার মানুষের যাতায়াতে বিরাট ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। বর্তমান এবং সাবেক সংসদ সদস্যরা নদীভাঙ্গন প্রতিরোধে ব্লক নির্মাণের আশ্বাস দিলেও সংসদে এ নিয়ে এখনো বিল পাশ হয় নি বলে জানা গেছে। এলাকার বাসিন্দা আব্দুল বাসিত জানান, আমি এপর্যন্ত পাঁচবার ঘর স্থানান্তরিত করেছি, কিন্তু বারবার নদীভাঙ্গনের শিকার হচ্ছি। শামীমের মা জানান, আমাদের বাড়ি থেকে কয়েকটি পরিবার অন্যত্র চলে গেছেন। কেউ আত্মীয়র বাড়িতে, আবার কেউ ভাড়াটিয়া, কেউ নিজস্ব জমিতে বাড়ি নির্মাণ করে চলে গেছেন। কিন্তু আমাদের সামর্থ না থাকায় আমরা অন্যত্র যাওয়া সম্ভব হচ্ছে না।

মানববন্ধনে বক্তারা জকিগঞ্জ-কানাইঘাটের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব হাফিজ আহমদ মজুমদার এর প্রতি লক্ষ করে বলেন, তিনি যেনো সংসদে অচিরেই ওই নদীভাঙ্গনের বিল পাশ করে ব্লক নির্মাণ করে বাংলাদেশের মানচিত্র রক্ষা করে এলাকার মানুষের যাতায়াতের ব্যবস্থা করে দেন।